1. admin@bijoyer-alo.com : admin :
  2. babul01713@gmail.com : Babul :
  3. videomidea.kabir@gmail.com : Kabir :
  4. armanik76@gmail.com : Manik :
  5. mdmohaiminul77@gmail.com : Mohaiminul :
  6. reza.s061@gmail.com : S Reza :
  7. md.sazu4@gmail.com : Sazu :
বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ১২:৪৬ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
শিবগঞ্জে দুর্বৃত্ত কর্তৃক সাবেক ইউপি সদস্যকে খুন নীলফামারীতে যুব উদ্যোক্তাদের মাঝে অনুদানের চেক বিতরণ। বগুড়ার শিবগঞ্জে মালিকবিহীন ১৪ বস্তা চাল উদ্ধার নীলফামারীতে উপ নির্বাচনের ফলাফল বাতিলের দাবিতে বিএনপি’র মানববন্ধন হাতীবান্ধায় দুই ইউপি উপ-নির্বাচনে আ’লীগ প্রার্থী শ্যামল ও সাদাদ জয়ী জীবন সংগ্রামে সফল দেবহাটার পাঁচ নারীর আত্মকথা নীলফামারীতে চকলেটের লোভ দেখিয়ে ৩য় শ্রেনীর ছাত্রীকে ধর্ষন দেবহাটায় মিথ্যা অপবাদ সহ্য করতে না পেরে অন্তস্বত্তা গৃহবধূর আত্মহত্যার চেষ্টা: অভিযোগ দায়ের করে হুমকির মুখে ভিকটিমের পরিবার রাতে ফ্লাইট ওঠানামার উপযোগী বিমানবন্দর করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর কাশ্মীরে পর পর দু’দিন অভিযান, নিহত ৪

নীলফামারী চাঁদেরহাট ডিগ্রী কলেজের শিক্ষার্থীদের মানসম্মত শিক্ষা দেয়াই আমার লক্ষ্য: অধ্যক্ষ শহিদুল ইসলাম

মোঃ সোহেল রানা, নীলফামারী প্রতিনিধিঃ
  • শনিবার, ৩ অক্টোবর, ২০২০
  • ২৪
১৯৯৪ সালে শিক্ষার্থীদের মানসম্মত শিক্ষা প্রদানসহ গ্রামের অসহায় অস্বচ্ছল ব্যক্তিদের ছেলে-মেয়েদের মানসম্মত শিক্ষা অর্জনের কথা চিন্তা করেই স্বীয় উদ্যোগে জেলা সদরের অভ্যন্তরে রামনগর ইউনিয়নের চাঁদেরহাট এলাকায় চাঁদের হাট ডিগ্রী কলেজটি প্রতিষ্ঠিত করেন প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ মো: শহিদুল ইসলাম। প্রতিষ্ঠালগ্ন হতে গুটি কয়েক শিক্ষক মন্ডলী আর ছাত্র-ছাত্রী নিয়ে হাটি-হাটি, পা-পা করে প্রতিষ্ঠানটিতে শুরু হয় শিক্ষা কার্যক্রম।
এরপর থেকে প্রতিষ্ঠানটিতে বাড়তে থাকে ছাত্র-ছাত্রী। ক্রমান্বয়ে যোগদান করে একের পর এক শিক্ষক ও কর্মচারী। ১৯৯৫ সালে প্রতিষ্ঠানটিতে চালু হয় ইন্টারমিডিয়েট কোর্স। শিক্ষার মান ও ফলাফল সন্তোষজনক হওয়ায় ১৯৯৮ সালে এম,পি,ও ভুক্ত হয় প্রতিষ্ঠানটি। আর তার পর পরপরেই ১৯৯৯ সালে কলেজটিতে চালু হয় ডিগ্রী কোর্স এবং স্থাপিত হয় চারতলা বিশিষ্ট্য একাডেমিক ভবন। শিক্ষার মান ও সুষ্ঠু প্যাটার্ণে প্রতিষ্ঠানটি পরিচালিত হওয়ায় ২০০৪ সালে নীলফামারী জেলার শ্রেষ্ঠ অধ্যক্ষ হিসেবে খ্যাতী লাভ ও সম্মাননা ক্রেষ্ট অর্জন করে প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ মো: শহিদুল ইসলাম।
এছাড়াও একজন শিক্ষাবিদ হিসেবে মাদার তেরেসা ও ড. মো: শহিদুল্লাহ এ্যাওয়ার্ডেও ভূষিত হন তিনি। কথা হয় চাঁদেরহাট ডিগ্রী কলেজ’র অধ্যক্ষ শহিদুল ইসলাম এর সাথে, তিনি জানান, “১৯৯৪ সালে কলেজটি প্রতিষ্ঠার পর ১৯৯৫ সাল হতে অধ্যাবধি পর্যন্ত অধ্যক্ষ্যের দায়িত্ব পালন করছি। উন্নত শিক্ষা, নিয়মাবর্তিতা ও সন্তোষজনক ফলাফলের ধারা অব্যাহত থাকায় গত ২০০৪ সালে জেলার শ্রেষ্ঠ অধ্যক্ষ এবং একজন শিক্ষাবিদ হিসেবেও মাদার তেরেসা ও ড. মো: শহিদুল্লাহ এ্যাওয়ার্ডেও ভূষিত হই। দরিদ্র ও অসহায় শিক্ষার্থীদের জন্য কয়েজটিতে চালু রয়েছে দরিদ্র তহবিল”।
তিনি আরো বলেন, “গত বছর দুইশত বিশজন এইচ,এস,সি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে সাফেল্যর সাথে পাস করেছে। দীর্ঘ ২৬ বছর ধরে স্থানীয় অস্বচ্ছল ও অসহায় ব্যক্তিসহ উচ্চবিত্ত¡ ও মধ্যবিত্ত¡ ব্যক্তিদের ছেলে-মেয়েরা এ কলেজে অধ্যায়ন করছে। শিক্ষার মানোন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে সুষ্ঠু প্যাটার্ণে অভিজ্ঞ শিক্ষক মন্ডলী দ্বারা অত্যন্ত সুনামের সাথেই পরিচালিত হচ্ছে কলেজটি”। প্রতিষ্ঠাকালীন থেকেই প্রতিষ্ঠানটিতে শিক্ষার উন্নত মান এর ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখায় প্রতিষ্ঠানটিকে একটি মডেল প্রতিষ্ঠান হিসেবে দাবী করছেন স্থানীয়রা।

নিউজটি পছন্দ হলে শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরও খবর পড়ুন

আজকের দিনপঞ্জিকা

October ২০২০
Fri Sat Sun Mon Tue Wed Thu
« Sep    
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১